সবজি রেসিপি

সবজি রেসিপি

ফিচারড পোষ্ট সবজি রেসিপি
সবজি বিরিয়ানি

সবজি বিরিয়ানি একটি জনপ্রিয় খাবার। মাংস বিরিয়ানি যেমন মানুষের নিকট প্রিয়, তেমনি সবজি বিরিয়ানিও মানুষের নিকট অনেক জনপ্রিয়। আসুন আমরা এই মজাদার সবজি বিরিয়ানি কিভাবে রান্না করতে হয় তা জেনে নেই।

উপকরণসমূহ:

১। বাসমতি চাল- ৩ কাপ,

২। আলু ১/২ কাপ,

৩। ফুলকপি ১/২ কাপ,

৪। বরবটি ১/২ কাপ,

৫। গাজর ১/২ কাপ,

৬। মটরশুঁটি ১/২ কাপ,

৭। ধনেপাতা কুচি ১/২ কাপ,

৮। কাজু বাদাম ১০ টা,

৯। টক দই ২ টেবিল চামচ,

১০। টমেটো ১ (ব্লেন্ড করে রাখুন),

১১। মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ,

১২। ধনিয়া গুঁড়া ১/২ চা চামচ,

১৩। জিরা গুঁড়া ১/২ চা চামচ,

১৪। গরম মসলা গুঁড়া- ১ চা চামচ,

১৫। আদা বাটা- ১ চা চামচ,

১৬। পেঁয়াজ বাটা – ১ টেবিল চামচ,

১৭। পেঁয়াজ কুচি- ১/২ কাপ,

১৮। কাঁচামরিচ – ৫-৬ টা,

১৯। তেল, ঘি, লবণ, আস্ত গরম মসলা (এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ) পরিমানমত,

২০। আলু বোখারা – ৫-৬ টা,

২১। তেজপাতা – ২ টুকরা।

 

প্রস্তুতপ্রনালী :

সমস্ত সবজি ভাল করে ধুয়ে কিউব করে কেটে নিতে হবে। এবার ১/২ চা চামচ লবণ দিয়ে সবজিগুলো অল্প ঘিতে হাল্কা করে ভেজে একটি প্লেটে তুলে রাখতে হবে। এবার চাল ভালভাবে ধুয়ে ছাকনিতে পানি ঝরাতে দিতে হবে। একটি বড় পাত্রে ৬ কাপ পানি ফুটাতে হবে। পানি ফুটতে শুরু করলে ধুয়ে রাখা চাল দিয়ে দিতে হবে। ১/২ চা চামচ লবণ ও সব আস্ত মসলাগুলো দিয়ে ভাত ফুটিয়ে নিতে হবে। তারপর ভাত ছাকনিতে নিয়ে পানি ঝরাতে রেখে দিতে হবে। যেই পাত্রে বিরিয়ানি করবেন তাতে ঘি তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে নিতে হবে। পেঁয়াজের মাঝে সব বাটা মসলা,  গুঁড়া মসলা,  ব্লেন্ড টমেটো ও লবন দিয়ে ভাল করে তেল আলাদা হয়ে আসা পর্যন্ত কষাতে হবে। তারপর টক দই দিয়ে মসলার সাথে ভাল করে মিশাতে হবে। এবার কাজু বাদাম ও ভাজা সবজিগুলো দিয়ে আস্তে আস্তে মসলার সাথে ভাল করে মিশাতে হবে। অল্প পানি দিয়ে পাত্রটি ঢেকে দিয়ে ৫-৬ মিনিট বা সবজি হাল্কা নরম হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে থাকুন। তারপর অর্ধেক ধনেপাতা কুচি দিয়ে আরও ১ মিনিট কম আঁচে রান্না করতে থাকুন। বিরিয়ানি লেয়ার করে দমে দেয়ার জন্য, অর্ধেক সবজি পাত্র থেকে উঠিয়ে রাখতে হবে। প্রথমে পাত্রের অর্ধেক সবজির উপর অর্ধেক রান্না করে রাখা ভাত দিতে হবে। কাঁচামরিচ, আলুবোখারা, বাকি ধনেপাতাকুচি ও ভাজা পেঁয়াজগুলো ভাতের উপর বিছিয়ে দিতে হবে। তারপর বাকি সবজিগুলো দিয়ে তার উপর সব ভাত দিয়ে দিয়ে দিতে হবে। তারপর পাত্রের ঢাকনা ভাল করে আটকিয়ে দিন যেন ভাপ বের হতে না পারে। খুব অল্প আঁচে আনুমানিক ১০ মিনিট মত বিরিয়ানি দমে দিন। বিরিয়ানি হয়ে গেলে, সঠিক সময়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপিটি যদি আপনাদের ভালো লাগে এবং তৈরী করতে কোন প্রকার সমস্যার সম্মুখীন হলে আমাকে কমেন্টস করে জানাবেন। আমি আপনাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করব। ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *